• আজঃ বৃহস্পতিবার, ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে অক্টোবর, ২০২০ ইং
  • English

পাশবিকতা নিয়ন্ত্রণেই ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান :প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, অ্যাসিড-সন্ত্রাসের মতো ধর্ষণ নামের পাশবিকতা নিয়ন্ত্রণেইতার সরকার আইন সংশোধন করে ধর্ষণের শাস্তিমৃত্যুদণ্ডের বিধান সংযুক্ত করেছে।

গতকালমঙ্গলবার আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবসেরউদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি আরো বলেন, ‘ধর্ষণএকটা পাশবিকতা, মানুষ পশু হয়ে যায়।

যারকারণে আমাদের মেয়েরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। সেজন্যআমরা ধর্ষণ করলে যাবজ্জীবনের সঙ্গে মৃত্যুদণ্ডেরবিধান রেখে আইনটি সংশোধন করে কেবিনেটেপাশ করেছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘অ্যাসিড নিক্ষেপকে আমরানিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছি। কারণ সেখানে আমরাআইন সংশোধন করেছিলাম।

যেহেতু পার্লামেন্টসেশন নাই, তাই আমরা এক্ষেত্রে অধ্যাদেশ জারিকরে দিচ্ছি।

যে কোনো একটা সমস্যা দেখা দিলেসেটাকে মোকাবিলা করা এবং দূর করাই আমাদেরলক্ষ্য। সেই লক্ষ্য নিয়েই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।’

সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমেরাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে দুর্যোগব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় আয়োজিতআন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবসের মূল অনুষ্ঠানেঅংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। ‘

দুর্যোগ মোকাবিলায়বাংলাদেশ আজকে সমগ্র বিশ্বে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘জাতির পিতার পদাঙ্কঅনুসরণ করে আমরা মনে করি যে কোনোঅবস্থাতেই যে কোনো ধরনের দুর্যোগ মোকাবিলাকরতে আমরা পারব এবং বাঙালি পারে।’

কোভিড-১৯কে আরেকটি দুর্যোগ আখ্যায়িত করেতিনি বিএনপি-জামায়াতের অগ্নিসন্ত্রাসের দিকেইঙ্গিত করে বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগের সঙ্গে অনেকসময় মনুষ্য সৃষ্ট দুর্যোগও মোকাবিলা করতে হয়।

তিনি বলেন, ‘এর আগে আপনারা দেখেছেনবিএনপি-জামায়াতের সেই অগ্নিসন্ত্রাস। জীবন্তমানুষগুলোকে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করাহয়েছিল। সেটাও কিন্তু আমরা মোকাবিলা করেছি।’

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো এনামুর রহমান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানে বিনা মূল্যে ১৭ হাজার পাঁচটিদুর্যোগসহনীয় গৃহ প্রদান কর্মসূচি এবং ১৮ হাজার৫০৫ জন নারী কর্মী সংবলিত ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতিকর্মসূচি-সিপিপির নতুন একটি নারী ইউনিটউদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে তার পক্ষে প্রতিমন্ত্রীদুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ৪২ জন পুরুষ এবং ৪২ জন নারীর মধ্যে পদকবিতরণ করেন।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ বিতাজুল ইসলাম এবং মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোহসীন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। দুর্যোগসহনীয়ঘরপ্রাপ্ত উপকারভোগীদের পক্ষে ঢাকা জেলারসাভার উপজেলার বেদেনী নুরুন্নাহার, গাইবান্ধারমো. রিয়াজুল হক এবং নারী সিপিপি কর্মী কাশফিয়াতালুকদার অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমাদের ৫৪ হাজারস্বেচ্ছাসেবক দুর্যোগ মোকাবিলায় কাজ করছেন। এরমধ্যে নারী স্বেচ্ছাসেবকেরাও যথেষ্ট ভূমিকা রাখছেন।আমি তাদের অভিনন্দন জানাই।

দুর্যোগমোকাবিলায় সরকারের নেওয়া নানা উদ্যোগের কথাতুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, উপকূলে ব্যাপক হারেগাছ লাগিয়ে সবুজ বেষ্টনী তৈরি করা, দুর্যোগসহনীয়ঘরবাড়ি তৈরি করার মতো কার্যক্রম তার সরকারবাস্তবায়ন করছে।

ড্রেজিং করে খাল খননের মাধ্যমেনদীগুলোর নাব্য ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০১৯ সালের জুলাই মাসে ঢাকায়‘গ্লোবাল কমিশন অন অ্যাডাপটেশন’-এর সভায়জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন দুর্যোগপ্রতিরোধে বাংলাদেশের সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ ‘বিশ্বঅভিযোজন কেন্দ্র-ঢাকা অফিস’ স্থাপনের ঘোষণাদেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে গত মাসে গ্লোবালঅ্যাডাপটেশন সেন্টারের কার্যালয় স্থাপন করাহয়েছে।

এবার বাংলাদেশ দ্বিতীয়বারের মতোজলবায়ু ক্ষতিগ্রস্ত ফোরাম-সিভিএফের নেতৃত্বের জন্যনির্বাচিত হয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘একটা সময় দেশে অনেকঅবহেলিত, অনগ্রসর মানুষ ছিল, সমাজে যাঁদেরকোনো স্থান ছিল না।

আমরা কিন্তু তাদের স্বীকৃতিদিয়েছি। তাদের ঠিকানা হয়েছে। আমরা হিজড়াথেকে শুরু করে সবাইকে স্বীকৃতি দিয়েছি।’

প্রধানমন্ত্রী এ সময় কোভিডের পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড়আম্ফান মোকাবিলায় সরকারের সাফল্য তুলে ধরেবলেন, ‘ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ২৪ লাখ মানুষকে আমরাআশ্রয়কেন্দ্রে নিয়ে যাই।

কীভাবে সাধারণ মানুষকেসঙ্গে নিয়ে দুর্যোগ মোকাবিলা করতে হয়, বাংলাদেশসেই পথ দেখাচ্ছে।’

ফেসবুকে লাইক দিন

Latest Tweets

তারিখ অনুযায়ী খবর

October 2020
FSSMTWT
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031