• আজঃ শনিবার, ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং
  • English
ব্রেকিং নিউজঃ

অনন্ত জলিলকে বয়কটের ঘোষণা অভিনেত্রী শাওনের

ধর্ষণের প্রতিকারে নারীদের শালীনতা বজায় রেখে চলাফেরা করার পরামর্শ দেয়া অভিনেতা অনন্ত জলিলকে বয়কটের ঘোষণা দিয়েছেন অভিনেত্রী মেহের আফরোজ শাওন।

রোববার বিকাল পৌনে ৩টার দিকে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে তিনি এ ঘোষণা দেন।

প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী শাওন তার ফেসবুক টাইমলাইনে লেখেন, আমি মেহের আফরোজ শাওন, বাংলাদেশের একজন চলচ্চিত্র ও মিডিয়াকর্মী এবং স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের সচেতন নাগরিক হিসাবে বাংলাদেশের নারীদের প্রতি কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য এবং অসংলগ্ন বক্তব্য সম্বলিত ভিডিও বার্তা দেয়ার জন্য জনাব অনন্ত জলিলকে বয়কট করলাম।

তবে মন্তব্য অপশনটি পাবলিক করা হয়নি। শুধু নির্ধারিত অডিয়েন্সেই মন্তব্য করার সুযোগ পেয়েছেন।

অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি তার মন্তব্যে শাওনের উদ্দেশে লেখেন, আপনি কী ছিলেন তার সাথে? আমার অবশ্য বয়কটের বাড়তি পেইনটা নিতে হলো না!

ফেসবুকে তার টাইমলাইনের দেয়া ওই বক্তব্যকে সমর্থন জানিয়েছে প্রীতি নামের একজন তার মন্তব্যে লিখেন, মেয়েরা কী পরবে কী পরবে না এটা তার নিজস্ব পছন্দ।

এটাকে যদি কেউ ধর্ষণের কারণ হিসাবে তৈরি করে। জনগণের মনে আরও মানসিক বিকার তৈরি করে তবে তার স্থান জেলখানা হওয়া উচিৎ।

মানসিকতা না পরিবর্তন হলে এদেশে রেপ কালচার থামবে না। ফাঁসির সঙ্গে সঙ্গে এ আইনটাও জরুরি যে কেউ মেয়েদের পোশাক, চলাফেরা, রাতে দেরিতে বাড়ি ফেরা, চাকরি বা ব্যবসা করা নিয়ে কথা কোনো নেগেটিভ কথা বলতে পারবে না। বললেই ৩ মাসের জেল।

সোজা আঙুলে ঘি না উঠলে আঙুল বাঁকা করতেই হবে। মানসিকতা পরিবর্তন কর না হলে জেলে থাক। কারণ এরাই উসকে দেয়।

প্রসঙ্গত, খোলামেলা পোশাক পরে বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে নারীদের উদ্দেশে অভিনেতা অনন্ত জলিল বলেছেন, এ ধরনের পোশাকের কারণে মানুষ আপনার মুখের পরিবর্তে আপনার শরীর দেখে।

তারা অশ্লীল মন্তব্য করে এবং ধর্ষণের কথা চিন্তা করে। শনিবার রাতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি ভিডিও পোস্ট করেন অনন্ত জলিল।

ফেসবুকে লাইক দিন

Latest Tweets

তারিখ অনুযায়ী খবর