• আজঃ বৃহস্পতিবার, ১৪ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে অক্টোবর, ২০২০ ইং
  • English
ব্রেকিং নিউজঃ

ইতিহাসের সাক্ষী: আফগানিস্তানে কিভাবে ঢুকেছিল সোভিয়েত বাহিনী

উনিশশ’ উনআশি সালের ডিসেম্বরের শেষ দিক।আফগানিস্তানের কমিউনিস্ট সরকারকে রক্ষা করতে সেদেশে ঢুকে পড়লো সোভিয়েত সেনাবাহিনী।

মস্কো তখন বলেছিল, সোভিয়েত সৈন্যরা ৬ মাস থাকবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেদেশে সোভিয়েত সৈন্যরা ছিল দীর্ঘ ১০ বছর, এবং আফগানিস্তান পরিণত হয়েছিল সোভিয়েত ইউনিয়নের ভিয়েতনামে।

আফগানিস্তানের সোভিয়েত বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়া্ইয়ের ভেতর দিয়েই জন্ম হয়েছিল তালেবান এবং আল-কায়েদার মতো জিহাদি বাহিনীগুলোর।

এদের একজন হলেন ভিরশভ ইসমাইলভ – যিনি আফগানিস্তানে সৈন্য হিসেবে কাজ করেছেন, এবং আরেকজন হলেন সাংবাদিক আন্দ্রেই অস্টালস্কি-র সাথে।

বিবিসির লুইস হিদালগো কথা বলেছেন এমন দু-জনের সাথে যারা ইতিহাসের মোড় বদলে দেয়া সেই ঘটনাপ্রবাহের প্রত্যক্ষ সাক্ষী।

সেটা ১৯৭৯ সালের ডিসেম্বরের ২৪ তারিখ। আন্দ্রেই অস্টারস্কি তখন কাজ করেন সোভিয়েত ইউনিয়নের সরকারি বার্তা সংস্থা তাসে।

ক্রেমলিন থেকে একটা ফোন এলো তাসের মহাপরিচালক সের্গেই লোসেফের কাছে। তার পরই অস্টারস্কিকে ডেকে পাঠালেন মি. লোসেফ।

“আমি তখন বাড়ি যাবার জন্য আমার জিনিসপত্র গোছাচ্ছি। ঠিক সেই সময় মহাপরিচালকের ঘরে আমার ডাক পড়লো।

“আমি তখন বাড়ি যাবার জন্য আমার জিনিসপত্র গোছাচ্ছি। ঠিক সেই সময় মহাপরিচালকের ঘরে আমার ডাক পড়লো।

মহাপরিচালক বললেন, অস্টারস্কিকে সারারাত অফিসেই থাকতে হবে এবং বিদেশ থেকে এর কি প্রতিক্রিয়া আসে – যেসব খবর সংগ্রহ করতে হবে।

কিন্তু এসব খবর সংগ্রহ করার অভিজ্ঞতা তখন অস্টারস্কির ছিল না। তিনি তখন ছিলেন একজন জুনিয়র রিপোর্টার।

আফগানিস্তানে সোভিয়েত সৈন্যদের একটি দল “ঠিকই তাই, অনেক পরে আমি কেজিবি-র বিদেশী গোয়েন্দা সংস্থা বিষয়ক প্রধান বিশ্লেষকের স্মৃতিচারণ পড়ে খুব অবাক হয়েছিলাম।

তিনিও লিখেছিলেন যে তিনিও ওই খবরে খুব অবাক হয়েছিলেন।

২৪শে ডিসেম্বরের পরে তিন দিন ধরে – ২৬শে ডিসেম্বর পর্যন্ত – হাজার হাজার সোভিয়েত সৈন্য আফগানিস্তানে ঢুকলো।

স্থানীয় সংবাদে জানানো হয়, দু দিন ধরে কাবুল বিমান বন্দরে প্রায় ২০০টি সোভিয়েত সামরিক পরিবহন বিমান অবতরণ করে।

ছোট ও বড় আকারের ‘আন্তনভ’ পরিবহন বিমান ভর্তি করে আনা হয়েছিল এই সৈন্যদের।

মস্কো থেকে অনেক দূরে সোভিয়েত প্রজাতন্ত্র দাগেস্তানে – রেডিওতে আফগানিস্তানে সৈন্য পাঠানোর ঘোষণাটি শুনেছিলেন এক তরুণ শিক্ষক ভিয়েরস্লাভ ইসমাইলভ।

“ব্যাপারটা ছিল এই রকম যে সোভিয়েত সেনাবাহিনী সবসময়ই দুনিয়ার কোথাও না কোথাও যুদ্ধ করছিল। এ সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যেতো খুবই কম” – বলছিলেন ইসমাইলভ।

সেকেলে অস্ত্র হাতে প্রথম দিকের সোভিয়েতবিরোধী আফগান মুজাহিদরা।

“ব্যাপারটা ছিল এই রকম যে সোভিয়েত সেনাবাহিনী সবসময়ই দুনিয়ার কোথাও না কোথাও যুদ্ধ করছিল। এ সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যেতো খুবই কম” – বলছিলেন ইসমাইলভ।

সেকেলে অস্ত্র হাতে প্রথম দিকের সোভিয়েতবিরোধী আফগান মুজাহিদরা “মনে আছে – আমাদের শুধু বলা হয়েছিল আমরা শুধু আফগানদের সাহায্য করছি, রাস্তা, স্কুল এবং হাসপাতাল পুননির্মাণ করছি। সামরিক অভিযানের কোন উল্লেখ ছিল না।

তাদের শত্রুদের সম্বোধন করা হতো ‘ডাকাত’ বলে, এবং তাদের হাত থেকে আফগান জনগণকে রক্ষা করছি আমরা – এটাই বলা হয়েছিল।

এর মধ্যে মস্কোতে তাসের অফিসে – অস্টারস্কিকে আফগানিস্তান সংক্রান্ত নিউজ ডেস্কের দায়িত্ব দেয়া হলো। কারণ তারা আফগানিস্তানের ভাষা দারি এবং পশতু বলেন ও বোঝেন এমন বিশেষজ্ঞ পাচ্ছিলেন না।

তাসের ভেতরে কোন তথ্য প্রকাশের আগে তাকে নানা পর্যায়ের ভেতর দিয়ে যেতে হতো।

অনেক তথ্যই তারা জানতে পেতেন যা সেন্সর করা নয়। সাধারণ মানুষের সেটা জানার কোন উপায় ছিল না। সেগুলো যেতো পলিটব্যুরোর কাছে বা অন্য কোন উর্ধতন কর্মকর্তার কাছে।

১৯৮০-র দশকে আধুনিক অস্ত্র হাতে মার্কিন-সমর্থিত আফগান যোদ্ধারা এভাবেই একদিন অস্টারস্কিকে পাঠানো হলো স্থানীয় পার্টি কর্মকর্তাদের এসব তথ্য সম্পর্কে একটা ব্রিফিং দেবার জন্য।

“হ্যাঁ, আমি তাদের বলেছিলাম যে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট হাফিজুল্লাহ আমিন – যাকে সোভিয়েত কমান্ডোরা হত্যা করেছিল – এবং তারপর এক মদ্যপ কেজিবি এজেন্ট বাবরাক কারমাল একটা সংখ্যালঘু সরকারের ভেতরেও সংখ্যালঘু একটা অংশের নেতা ছিলেন, কিন্তু সোভিয়েত ইউনিয়ন তার ওপরেই নির্ভর করছিল। কিন্তু আফগানিস্তান তখন ছিল বিশ্বের সবচেয়ে সমস্যাসংকুল দেশ।”

ফেসবুকে লাইক দিন

Latest Tweets

তারিখ অনুযায়ী খবর

October 2020
FSSMTWT
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031