• আজঃ বুধবার, ১৮ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১লা এপ্রিল, ২০২০ ইং
  • English

খালেদা জিয়ার মুক্তি, নেতাকর্মীদের বিশেষ বার্তা: মির্জা ফখরুল

Send Free SMS Online

চীন থেকে ছড়ানো করোনা পরিস্থিতির মধ্যে কারাবন্দী বেগম জিয়ার মুক্তি হলে আবেগে আপ্লুত না হয়ে নেতাকর্মীরা যেন ভিড় না করেন এবং  জনসমাগম না করে; সে বিষয়ে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্ববান জানিয়েছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিএনপি গুলশাল কার্যালয়ে তিনি একথা বলেন।

এ সময় মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, বিএনপি তার (খালেদা জিয়া) মুক্তির জন্য আন্দোলন সংগ্রাম করে আসছিলো; ঠিক সে মুহূর্তে বেগম জিয়ার পরিবার বেগম জিয়ার মুক্তির আবেদন করে। তবে, সরকারের শর্ত বোধগম্য নয় বিএনপির।

এ আগে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শর্তসাপেক্ষে খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি ইতিবাচকভাবে বিএনপি নেবে কিনা দলীয় ফোরামে আলোচনা করে বলবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন, সরকারের সিদ্ধান্তটা ভালোভাবে দেখতে হবে। শর্তসাপেক্ষে মুক্তির সিদ্ধান্ত বিষয়টি ইতিবাচকভাবে দেখা যায় কিনা- আলোচনা করে বলতে পারব।

এদিকে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও খালেদা জিয়ার মুক্তির প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব বলেন, নেতাকর্মীদের বলব আপনারা শান্ত থাকবেন। স্বাস্থ্যের দিকে যত্নবান হবেন।

অপরদিকে খালেদা জিয়ার মুক্তি হচ্ছে- এমন খবর প্রকাশিত হওয়ার পরপর দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের সামনে চলে যান। সেখানে তার সঙ্গে কেন্দ্রীয় ও মহানগরের নেতাকর্মীরাও অবস্থান করছেন।

এরআগে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছেন প্রধামন্ত্রীর নির্দেশেই বেগম খালেদা জিয়ার ৬ মাসের মুক্তির জন্য সুপারিশ করা হয়েছে । মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে গুলশানের নিজ বাসভবনে সংক্ষিপ্ত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

এ সময় আনিসুল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ব্যাপারে নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ হচ্ছে আইনি প্রক্রিয়ায় দুই শর্তে দণ্ডাদেশ স্থগিত রেখে তাকে মুক্তি দেওয়া হোক। সরকার মানবিক কারণে সদয় হয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১ ধারা (উপধারা-১) অনুযায়ী এটা আইনি প্রক্রিয়ায় করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বিদেশে গমন না করার শর্তে প্রধানমন্ত্রীর আদেশে খালেদা জিয়ার দণ্ডাদেশ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। এ সময় তাকে বাসায় থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে। বেগম খালেদা জিয়ার বয়স বিবেচনায় মানবিক কারণে সরকার সদয় হয়ে দণ্ডাদেশ স্থগিত রাখার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আইনমন্ত্রী বলেন, হাসপাতালে গিয়েও তিনি চিকিৎসা নিতে পারবেন। তবে তাকে ঢাকার নিজ বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিতে হবে এবং এই সময় তিনি বিদেশ যেতে পারবেন না। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাকে মুক্তি দিলেই এ আদেশ কার্যকর হবে।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে রয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) প্রিজন সেলে চিকিৎসাধীন।

ফেসবুকে লাইক দিন

Latest Tweets

তারিখ অনুযায়ী খবর

April 2020
SSMTWTF
« Mar  
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930